বাংলাদেশের শপথ অনুষ্ঠানে ‘মুজিববর্ষ’ বানান ভুল


জি ভয়েস ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী যে পোডিয়ামে দাঁড়িয়ে শপথবাক্য পাঠ করান, সেখানকার ডায়াসে ‘মুজিববর্ষ’ লেখায় ছিল ভুল। ‘সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষের শপথ’-এর পরিবর্তে লেখা ছিল ‘সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিবর্ষের শপথ’, অর্থাৎ একটি ‘ব’ সেখানে নেই।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে উন্নত, সমৃদ্ধ ও অসাম্প্রদায়িক চেতনার বাংলাদেশ গড়ে তুলতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে শপথ নিয়েছে সারা দেশের মানুষ।

জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজা থেকে বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৪টার পর দেশবাসীকে শপথবাক্য পড়ান প্রধানমন্ত্রী। এ সময় প্রধানমন্ত্রীর পাশে ছিলেন জাতির পিতার কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহানা।

প্রধানমন্ত্রী যে ডায়াসে দাঁড়িয়ে শপথবাক্য পাঠ করান, সেখানে ‘মুজিববর্ষ’ লেখায় ছিল ভুল।

‘সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষের শপথ’-এর পরিবর্তে লেখা ছিল ‘সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিবর্ষের শপথ’, অর্থাৎ একটি ‘ব’ সেখানে নেই।

এ নিয়ে তাৎক্ষণিক সমালোচনা শুরু হয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। সংবাদমাধ্যমকর্মী জায়েদুল আহসান পিন্টু ফেসবুকে লিখেছেন, “সব ভুল ভুল না। কোনো কোনো ভুল শাস্তিযোগ্য। ‘মুজিববর্ষ’ লিখতে অবহেলা করায় বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন কমিটির দায়িত্বপ্রাপ্তদের শাস্তি হওয়া উচিত।”

এ বিষয়ে জানতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক কামাল আবদুল নাসের চৌধুরীকে ফোন করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

এ কমিটির মিডিয়া কনসালট্যান্ট আসিফ কবির ঘটনাটিকে যান্ত্রিক ত্রুটি দাবি করছেন। তিনি নিউজবাংলাকে বলেন, “এটা এলইডিতে করা। যান্ত্রিক ত্রুটির জন্য একটি ‘ব’ প্রস্ফুটন হয়নি। আমাদের দৃষ্টিতে আসার পরপরই অনুষ্ঠানের বিরতির সময়ে যান্ত্রিক ত্রুটিটি দূর করেছি।”

এই শপথ অনুষ্ঠানে জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীসহ আমন্ত্রিত অতিথিরা অংশ নেন। এ ছাড়া শপথ নেন সারা দেশের বিভিন্ন প্রান্তে যোগ হওয়া অগণিত মানুষ।

বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে এ শপথ করান সরকারপ্রধান।