প্রথমবার উট উৎসবে অংশ নিলেন সৌদি নারীরা


আন্তর্জাতিক ডেস্ক: প্রথমবারের মতো উটের প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছেন সৌদি নারীরা। উট উৎসবের ষষ্ঠ পর্বে প্রথমবারের মতো নারীরা অংশগ্রহণের সুযোগ পান। রিয়াদের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে ৩২ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে কিং আবদুল আজিজ ক্যামেল ফেস্টিভাল অনুষ্ঠিত হয়।

এ প্রতিযোগিতায় আরব উপদ্বীপের স্থানীয়দের মধ্যে বিখ্যাত জাত হিসেবে পরিচিত আল মুগাতির উটও অন্তর্ভুক্ত ছিল। বেদুইন উপজাতির মধ্যে বিভিন্ন রঙের আল মুগাতির উটের বিভিন্ন ভাগ রয়েছে। সাদা, হলুদ, লালসহ নানা রঙের এসব উটের একেক ধরনের নাম রয়েছে।  এ উৎসবে সৌদিসহ উপসাগরীয় দেশগুলো ও যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, ফ্রান্সসহ অনেক দেশ থেকে প্রতিযোগীরা অংশ নেন। 

গতকাল শনিবার (৮ জানুয়ারি) উট উৎসবের প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া একক নারী প্রতিযোগীদের ফলাফল ঘোষণা করা হয়। প্রতিযোগিতায় উত্তীর্ণ প্রথম পাঁচজনের নাম ঘোষণা দেওয়া হয়। এতে প্রথম স্থান অধিকার করেন হায়া আল আসকার, দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেন রাসমা আল দুসারি, তৃতীয় স্থান অধিকার করেন মালাত বিনতে আউন, চতুর্থ স্থান অধিকার করেন লামিয়া আল রাশিদি এবং পঞ্চম স্থান অধিকার করেন দালাল বিনতে আবদুল্লাহ আল উতাইবি। 

প্রথমবারের মতো উটের এ প্রতিযোগিতায় ৩৪ জন নারী অংশ নিয়েছেন। এদের মধ্যে অনেকে প্রথমবার এ ধরনের উৎসবে অংশ নেন। প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করায় নিজের উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন হায়া আল আসকার। দ্য বোর্ড অব দ্য ক্যামেল ক্লাবের চেয়ারম্যান ফাহাদ বিন হিতলিনের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। 

সৌদি নারী হিসেবে এ ধরনের ইভেন্টে প্রথমবার অংশ নিতে পেরে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন আল রাশিদি। তিনি বলেন, ‘নারীদের এতে অংশ নেওয়ার সুযোগ দেওয়ায় সৌদি বাদশাহ সালমানের প্রতি আমি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। আগামী বছরও আমি অংশগ্রহণ করতে পারব এবং তাতে আমি প্রথম স্থান অধিকার করব বলে আশাবাদী।’

তিনি আরো বলেন, ‘এ ধরনের উৎসবে নারীদেরকে অংশগ্রহণের আমন্ত্রণ জানাই। আমি অত্যন্ত গর্ববোধ করছি যে আমার উট শীর্ষ ১০ উটের মধ্যে স্থান লাভ করেছে।’ 

সূত্র : আরব নিউজ।