সুনামগঞ্জে ৬৫ বয়সে মুক্তিযোদ্ধার বিয়ে, এলাকাজুড়ে হইচই !


ডেস্ক রিপোর্ট : ৬৫ বছর বয়সে বিয়ে করেছেন উত্তম কুমার রায়। তিনি সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। বিয়ে কিংবা ভালোবাসার যে কোন বয়স নেই, এরই যেন প্রমাণ করলেন উত্তম কুমার। ৩৯ বছর বয়সী কনের সঙ্গে তাঁর এ বিয়ে নিয়ে সুনামগঞ্জে বেশ আলোচনার সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে, বর উত্তম কুমারের ৬৫ বয়স বছর আর কনে কন্টরি রানী দাসের বয়স ৩৯ বছর। বরের বয়স কনে থেকে ২৬ বছর বেশি। উত্তম কুমার তাহিরপুর উপজেলার বড়দল দক্ষিণ ইউনিয়নের টাকাটুকিয়া গ্রামের মৃত উপেন্দ্র কুমার রায় চৌধুরীর ছেলে। কনে কন্টরি রানী দাস সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের মৃত তরুণী কান্তি দাসের মেয়ে।

বীর মুক্তিযোদ্ধা উত্তম কুমার রায় চৌধুরী বলেন, দীর্ঘ দিনের অসুস্থতা ও পারিবারিক সমস্যার কারণে তিনি সময় মতো বিয়ে করতে পারেননি। কিন্তু এখন বিয়ে করাটা প্রয়োজন বোধ মনে করছেন বলে পরিবারের সিদ্ধান্তে বিয়েটা করেছেন।

স্বজনরা জানান, কনে ও বর পক্ষের আন্তরিক সহযোগিতায় শুক্রবার রাতে সুনামগঞ্জ শহরের হাছননগর এলাকার শ্রী শ্রী কেন্দ্রীয় দূর্গাবাড়ি মন্দিরে মালাবদল ও ধর্মীয় রীতিনীতি মেনে বিয়ে করেছেন তারা। বিয়েতে বর-কনে পক্ষের স্বজন, শুভাকাঙ্ক্ষীসহ বন্ধুবান্ধবরা উপস্থিত ছিলেন।

বরের ভাতিজা বিপ্লব চৌধুরী বলেন, তার কাকা একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। পারিবারিক ঝামেলা ও অসুস্থতার কারণে তিনি সময় মতো বিয়ে করতে পারেননি।

কনে কন্টরি রানী দাস বলেন, আমাদের নতুন জীবন শুরু হয়েছে। তিনি নতুন জীবনে সবার দোয়া কামনা করেছেন।

শ্রী শ্রী কেন্দ্রীয় দূর্গাবাড়ি মন্দির পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুবিমল চক্রবর্তী চন্দন বলেন, মন্দিরে একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার বিয়ে অনুষ্ঠান হওয়ায় তার খুব ভালো লেগেছে। মন্দিরে অনেক গরীব অসহায় পাত্রীর বিয়ে দেয়া হয়। বর ও কনে পক্ষ উভয় পরিবারের লোকজন বিয়ের আয়োজন করেন। মন্দির কমিটির পক্ষ থেকে তাদেরকে সহযোগিতা করা হয়।