একই মসজিদে ৩৫ বছর ইমামতি, বিদায়বেলায় ১৫ লাখ টাকা সম্মানী


ডেস্ক রিপোর্ট : চট্টগ্রামের খুলশিতে ইমামের বিদায়ে বিরল সম্মাননা জানিয়েছেন মসজিদ কমিটি ও মুসল্লিরা। টানা ৩৫ বছর একই মসজিদে ইমামতির দায়িত্ব থেকে বিদায়বেলায় নগদ ১৫ লাখ টাকা এবং নানা উপহারসামগ্রী দিয়ে সম্মাননা দেয়া হয়।

রোববার (১ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম নগরীর খুলশী কলোনি বায়তুল জান্নাত জামে মসজিদ কমিটি ও খুলশি কলোনি এলাকার মুসল্লিরা এ সম্মাননা দেন।

ওই ইমামের নাম আলহাজ হাফেজ মাওলানা গোলাম কিবরিয়া (৬২)। নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চরজব্বার থানার চরবাটা গ্রামের মৃত আলহাজ হাফেজ সোলায়মানের ছেলে তিনি।

পারিবারিক জীবনে তিন ছেলে ও তিন মেয়ের বাবা মাওলানা কিবরিয়া। তার তিন ছেলেই কুরআনের হাফেজ ও উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত। মেয়েদের বিয়ে দিয়েছেন। এক মেয়ে মাস্টার্স ও অন্য দুই মেয়ে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেছেন।

মাওলানা কিবরিয়া মাত্র ২৭ বছর বয়সে ওই এলাকায় এসে ইমামতি এবং এলাকার মক্তবে পড়ানো শুরু করেন। প্রায় তিন যুগ ধরে মসজিদে ইমামের কাজ করার পর ৬২ বছর বয়সে গত ১ জানুয়ারি অবসর নেন। তার অবসরকে অবিস্মরণীয় করে রাখতে বিদায়ী ইমামের হাতে তুলে দেয়া হয় নগদ ১৫ লাখ টাকা ও নানা উপহারসামগ্রী।

মসজিদ পরিচালনা কমিটির যুগ্ম সম্পাদক সাব্বির হান্নান জানান, ‘উনি টানা ৩৫ বছর আমাদের মসজিদে ইমামতি করেছেন। একজন ইমামের কতই বা বেতন। বিদায়বেলায় আমাদের মনে হলো- ইমাম সাহেবকে যথাযথ সম্মান দেয়া উচিত। এ কারণেই মসজিদ কমিটি ও এলাকাবাসী সবাই মিলে ওই উদ্যোগ নিয়েছি।’

ইমামের বিদায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- খুলশি কলোনি বায়তুল জান্নাত জামে মসজিদের খতিব মাওলানা ড. আতাউর রহমান নদভী, খুলশী থানার অফিসার্স ইনচার্জ সন্তোষ কুমার চাকমা, মাওলানা হাফিজ আহমেদ, খুলশী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) শহীদুর রহমান, খুলশী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. নুরুল আবছারসহ আরও অনেকেই।