প্রতিষ্ঠানের কথা বিবেচনা করে পোস্ট ডিলেট দেওয়ার অনুরোধ : এমসি একাডেমির অধ্যক্ষ


নিজস্ব প্রতিবেদক : গোলাপগঞ্জে ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপিট সরকারি এমসি একাডেমির একটি বিষয়কে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে।ইতিমধ্যে বিষয়টি ব্যাপক আকার ধারণ করেছে। বিষয়টি সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ সুজিত কুমার তালুকদার৷


ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে তিনি একটি বার্তা প্রদান করেছেন। 

জি ভয়েস টোয়েন্টিফোর-এর সকল পাঠকদের উদ্দেশ্যে তার বার্তাটি হুবহু তুলে ধরা হলো - 

স্নেহের ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ,
আমি প্রাতিষ্ঠানিক কাজে ঢাকায় ছিলাম। আজ দুপুরে বাসায় এসেছি। কিছুক্ষণ আগে এমসি একাডেমীর একটি বিষয়ে আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। এমসি একাডেমী একটি স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান। কোন ব্যক্তিবিশেষের জন্য তার বদনাম কাম্য নয়। বিষয়টি আগামীকাল আমি প্রতিষ্ঠানে এসে তোমাদের সাথে নিয়ে আমরা দেখব। এখন পরীক্ষার্থী সহ কলেজ সেকশনের আমার যে সকল ছাত্র ফেইসবুকে এ কমেন্ট করছো তা প্রতিষ্ঠানের কথা বিবেচনা করে ডিলেট করে দাও। এটা তোমাদের প্রতি আমার বিশেষ ভাবে অনুরোধ। তা না হলে মানুষের মনে প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে বিরূপ মনোভাবের সৃষ্টি হবে। বিষয়টি আমরা সবাই বসে গুরুত্ব দিয়ে দেখব। আশা করি তোমরা আমার কথাটি দায়িত্ব নিয়ে বিবেচনা করবে। সবাই ভালো থেকো। 

অনুরোধ ক্রমে 
সুজিত কুমার তালুকদার 
ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ, সরকারি এমসি একাডেমি।