বন্যা ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে জৈন্তাপুরে


নিজস্ব প্রতিনিধি : সিলেটের জৈন্তাপুর কয়েক দিনের পাহাড়ী ঢলে সৃষ্ট বন্যায় উপজেলার প্রায় লক্ষাধিক মানুষ পানি বন্দি রয়েছে ৷ আজও পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে ৷ সারী ও বড় নয়াগং নদীর পানি স্বাভাবিক পর্যায়ে প্রবাহিত হচ্ছে ৷

গতকাল ১৮ মে বুধবার সরেজমিনে ঘুরে দেখা দরবস্ত ফতেপুর চিকনাগুল নিজপাট ও জৈন্তাপুর ইউপির নিম্নাঞ্চলোর পানি কিছুটা কমে ৷ দুপুর ১২টার পর হতে পুনরায় পানি বৃদ্ধি হচ্ছে ৷ পুনরায় পানি বৃদ্ধির কারনে মানুষজন আত্মংকিত হতে শুরু করেছে ৷ অপরদিকে বন্যা কবলিত মানুষের খাবার ও বিশুদ্ধ পানির সংকট দেখা দিয়েছে ৷ সরকারের পক্ষ হতে বন্যাত্রদের মধ্যে কোন প্রকার ত্রান সমাগ্রী এখনও পৌছায়নি ৷ 

এদিকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ হতে উপজেলা ২১টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে ৷ এসকল আশ্রয়কেন্দ্র গুলোতে গত ২৪ ঘন্টায় প্রায় ১০হাজার বেশি লোক আশ্রয় নিয়েছেন ৷ নিম্নাঞ্চলের লোকজন তাদের গৃহ পালিত গবাদী পশু গরু ছাগল মহিষ নিয়ে রাস্তার পাশ্বে অবস্থান করেছেন ৷ 

এছাড়া পানি বৃদ্ধি শুরু হওয়ায় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষহতে নিম্নাঞ্চলের পানি বন্ধি লোকজনদের নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে আনা হচ্ছে ৷ তবে আশ্রয়কেন্দ্রের চেয়ে বেশিরভাগ লোক নিকট আত্মীয়দের বাড়ীতে অবস্থান নিয়েছেন ৷ 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আল বশিরুল ইসলাম, উপজেলা চেয়ারম্যান কামাল আহমদ সহ সকল ইউপি চেয়ারম্যানরা বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন এবং বন্যা কবলিতদের মধ্যে বাড়ী বাড়ী গিয়ে সরকারের বরাদ্ধ ত্রান সহ ব্যক্তি উদ্যোগে বরাদ্ধকৃত ত্রান সামগ্রী পৌছে দিচ্ছেন ৷ প্লাবিত এলাকা সমুহের সকল প্রকার খোঁজ খরব নিচ্ছেন৷ বন্যা কবলিতদের নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিচ্ছে।