সুনামগঞ্জে সাবেক ইউপি সদস্যের লিঙ্গ কর্তন করলেন গৃহবধু!


জি ভয়েস ডেস্ক: সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় সাবেক ইউপি সদস্যের লিঙ্গ কর্তনের অভিযোগ ওঠেছে এক গৃহবধূর বিরুদ্ধে। গৃহবধূ ওই ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছেন।

জানা যায়, গত ৫ আগস্ট গভীর রাতে জেলার ধর্মপাশা উপজেলার সুখাইর রাজাপুর উত্তর ইউপির দিকচান গ্রামের সাবেক মেম্বার আজাদ হোসেন (৩৫) একই গ্রামের এক গৃহবধুকে (২৭) ধর্ষণ চেষ্টাকালে তার লিঙ্গ কর্তন করা হয়।

গৃহবধূর অভিযোগ, সাবেক ইউপি সদস্য আজাদ হোসেন তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করলে, সম্ভ্রম রক্ষায় ধারালো ব্লেড দিয়ে আজাদ হোসেনের লিঙ্গ কেটে ফেলেন।

গুরুতর আহত আজাদকে স্থানীয়রা তাৎক্ষণিক উদ্ধার করে নেত্রকোনা হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করেন।

সুখাইর রাজাপুর উত্তর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নাসরিন সুলতানা দীপা বলেন, সাবেক ইউপি সদস্য ও ওই মহিলার মধ্যে দীর্ঘদিন যাবত সম্পর্ক ছিল। তারা উভয়ই বিবাহিত ও সন্তানের জনক-জননী। ইউপি সদস্যের তিন ছেলে এক মেয়ে রয়েছে এবং মহিলাও তিন সন্তানের জননী। উনার স্বামী একজন রাজমিস্ত্রী তিনি বেশির ভাগ সময় পেশাগত কাজে বাড়ির বাইরে থাকেন। এই সুযোগে উভয়েই দৈহিক সম্পর্কে লিপ্ত হয় বলে অনেকেই জানান।

তবে গৃহবধূর অভিযোগ, সাবেক ইউপি সদস্য তাকে জোর পূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করে এ সময় তিনি সম্ভ্রম রক্ষায় লিঙ্গ কর্তণ করেন।

প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, উভয়ের মধ্যে গভীর সম্পর্ক ছিল সম্প্রতি কোনো বিষয় নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ দেখা দেওয়ায় এ অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে।

ধর্মপাশা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান বলেন, ভিকটিম মহিলা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন তদন্ত পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।