সুনামগঞ্জে ভাবীকে খুনের অভিযোগে দেবর আটক


ডেস্ক রিপোর্ট : সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জে দেবরের হাতে ভাবী খুনের ঘটনার প্রধান আসামি একরামুল হোসেনকে (৪০) আটক করেছে র‍্যাব। আটক একরামুল চান্দেরগাঁও গ্রামের মৃত আব্দুল মতিনের ছেলে।

র‍্যাব জানায়, রোববার (১৫ মে) সকালে সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার খুলুর মাটি গ্রামে জয়নাল মিয়ার বাড়িতে আত্মগোপনে থাকা অবস্থায় তাকে আটক করে র‍্যাব।
উল্লেখ্য, জামালগঞ্জ উপজেলার ভীমখালি ইউনিয়নের চান্দেরগাঁও গ্রামের আপন দুই ভাই আকমল হোসেন ও একরামুল হোসেনের মধ্য জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জেরে ৯ মে সকালে বিরোধপূর্ণ আঙিনায় আকমল হোসেনের স্ত্রী সুলেখা বেগম ধান শুকাতে গেলে একরাম হোসেন প্রথমে বাধা দেয়। এরপরেই তিনি লাঠি দিয়ে ভাবী সুলেখার মাথায় আঘাত করেন।
 
এ ঘটনায় গুরুতর আহত সুলেখা বেগমকে জামালগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে ৫ দিন চিকিৎসা নেয়ার পর (১৩ মে) শুক্রবার তিনি মারা যান। মারা যাওয়ার খবর পাওয়ার পর দেবর একরামুল হোসেন গ্রাম থেকে পালিয়ে আত্মগোপন করেন।
 
সুলেখা বেগম নিহতের ঘটনায় শনিবার নিহতের ছেলে বাদী হয়ে একরামুলকে আসামি করে জামালগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।
 
র‍্যাব সুনামগঞ্জ সিপিসি-৩ এর উপপরিচালক লে. কমান্ডার সিঞ্চন আহমেদ জানান, ঘটনার পর থেকে একরামুল তার বন্ধুর বাড়িতে আত্মগোপনে ছিলেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। তাকে জামালগঞ্জ থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হবে।