‘খেলনাসদৃশ’ বস্তু বিস্ফোরণে সিলেটে শিশুর মৃত্যু 


ডেস্ক রিপোর্ট : খেলনাসদৃশ বস্তু বাড়িতে নিয়ে ছেলেকে খেলতে দেন জ্যোৎস্না। খেলতে খেলতে তার জড়ানো বস্তুটিতে মোবাইলের ব্যাটারি যুক্ত করে জুয়েল মিয়া (১০)। এতে ওই বস্তুটি বিস্ফোরিত হয়ে মৃত্যু হয়েছে তার।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৭টার দিকে সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার মোহম্মদপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত জুয়েল গ্রামের পাথর ভাঙা শ্রমিক ময়না মিয়ার ছেলে। 

পরিবারের বরাত দিয়ে গোয়াইনঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম নজরুল ইসলাম জানান, ভারত থেকে আমদানি করা পাথর ভাঙার কাজ করেন ময়না মিয়া ও তাঁর স্ত্রী জ্যোৎস্না। সম্প্রতি কাজ করতে গিয়ে কুড়িয়ে পাওয়া খেলনাসদৃশ বস্তু বাড়িতে নিয়ে ছেলে জুয়েলকে খেলতে দেন জ্যোৎস্না। ওই বস্তুতে তার জড়ানো ছিল। গতকাল সন্ধ্যায় জুয়েল তার বাবার মুঠোফোনের একটি ব্যাটারি ওই খেলনায় জড়ানো তারে সংযোগ দেওয়ার চেষ্টা করছিল। এসময় সেটি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে জুয়েলের মুখ আঘাতপ্রাপ্ত হয়। পরে পরিবারের সদস্যরা জুয়েলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক জুয়েলকে মৃত ঘোষণা করেন।

পাথর শ্রমিক ও ব্যবসায়ীদের বরাত দিয়ে ওসি নজরুল আরও বলেন, ভারত থেকে আমদানি করা পাথরের সঙ্গে প্রায়ই বিস্ফোরক জাতীয় বস্তু চলে আসে। যেগুলো পাথর ভাঙার কাজে ব্যবহৃত হয়। ধারণা করা হচ্ছে, এমন কোনো বস্তুই খেলনা ভেবে ছেলেকে দিয়েছিলেন জ্যোৎস্না।

তিনি আরো জানান, ‘নিহত জুয়েলের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।’