হবিগঞ্জে পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক


ডেস্ক রিপোর্ট : হবিগঞ্জ জেলার লাখাইয়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। এতে পুলিশসহ অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বেশ কয়েক রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পুলিশ। বুধবার (১৬ নভেম্বর) রাতে উপজেলার বামৈ বাজারে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

হবিগঞ্জ পৌরসভার সাবেক মেয়র ও বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সমবায় বিষয়ক সম্পাদক জি কে গউছ বলেন, ‘সিলেটে গণসমাবেশ সফল করতে বামৈ বাজারে দলের অস্থায়ী কার্যালয়ে কর্মী সমাবেশ চলছিল। হঠাৎ পুলিশ হামলা চালায়। তারা গুলি ছুড়ে শতাধিক নেতাকর্মীকে আহত কর। এ সময় গাড়ি ও মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়। এছাড়া সভাপতির আসন থেকে উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক শেখ ফরিদ মিয়াকে তুলে নিয়ে যান তারা।’

স্থানীয়রা জানান, বিএনপি নেতাকর্মীরা বামৈ বাজারে দলীয় কার্যালয়ে কর্মী সমাবেশ আহ্বান করেন। উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক শেখ ফরিদ মিয়ার সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সমবায় বিষয়ক সম্পাদক জি কে গউছ। সমাবেশে উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। পুলিশ দ্রুত সমাবেশ শেষ করার তাগিদ দিলে নেতাকর্মীদের সঙ্গে তাদের কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে উভয়পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সমাবেশের চেয়ার ভাঙচুর করা হয়। সংঘর্ষ চলাকালে পুলিশ বেশ কয়েক রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে।

লাখাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুনু মিয়া বলেন, তাদের অভিযোগ সঠিক নয়। পুলিশের ওপরেই তারা (বিএনপি নেতাকর্মী) প্রথম আক্রমণ করেছে। এতে ৭-৮ জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কয়েক রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করা হয়েছে। তবে কাউকে আটকের বিষয়টি অস্বীকার করেন ওসি।