হবিগঞ্জে ইউপি সদস্যের ধর্ষণের শিকার নারী জনপ্রতিনিধি !


ডেস্ক রিপোর্ট : হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার বড় ভাকৈর পূর্ব ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) তিন নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য জুয়েল মিয়ার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের করেছেন একই পরিষদের সংরক্ষিত ওয়ার্ডের এক নারী সদস্য। অভিযুক্ত জুয়েল মিয়াকে গ্রেপ্তারের জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পুলিশ।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ডালিম আহমেদ।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, গত ১ অক্টোবর ওই নারী ইউপি সদস্যকে দাপ্তরিক কাজের কথা বলে উপজেলা পরিষদে নিয়ে যান জুয়েল মিয়া। কাজ না থাকা সত্ত্বেও তিনি তাকে বিভিন্ন অজুহাতে সেখানে আটকে রাখেন। এভাবে রাত ১১টা বেজে গেলে উপজেলা পরিষদের সামনের সড়কে গাড়ি পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে জুয়েল মিয়া ওই নারীকে গাড়ি নিয়ে আসার কথা বলে একটি বাড়িতে বসিয়ে রাখেন। কিছুক্ষণ পর ফিরে এসে বলেন গাড়ি পাওয়া যায়নি, আজ রাতে এখানেই থাকতে হবে।

এক পর্যায়ে জুয়েল ওই নারী ইউপি সদস্যের মোবাইল ফোন কেড়ে নেন ও রাতভর সেখানে রেখে ধর্ষণ করেন। পরদিন সকালে তাকে একটি গাড়িতে তুলে বাড়িতে পাঠিয়ে দেন জুয়েল। এ ঘটনা জানতে পেরে ওই নারীর স্বামী তাকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিন। পরে তিনি গত ৩ নভেম্বর নবীগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ডালিম আহমেদ বলেন, অভিযোগকারী নারী ইউপি সদস্যের ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে, তবে এখনও রিপোর্ট পাওয়া যায়নি। জুয়েল মিয়াকে গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে।